Tuesday , November 24 2020
Image: google

সম্পত্তির লো’ভে বাবাকে ন’গ্ন করে রা’স্তায় ফে’লে বে’দম প্র’হার ছেলের!

সম্পত্তির লো’ভে বাবাকে ন’গ্ন করে রা’স্তায় ফে’লে বে’দম প্র’হার ছেলের – বৃদ্ধ বয়সে প্রত্যেকটা মা-বাবাই তার সন্তান-সন্ততিদের ওপর ভরসা করে বাঁচ’তে চান। কিন্তু কজনের কপালে সেই সুখের ভাগ্য জোটে তা হয়তো কিছু কিছু

ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেবে। মানুষ যতই স্বাবলম্বী হোক না কেন একটা সময় পর তাকে কারো না কারো কাঁধে মাথা রেখে জীবনধারণের কথা ভাবতে হয়। সম্পত্তির লো’ভ এমন এক জিনিস যা মনুষ্যত্বকে নিম্নতর পর্যায়ে নিয়ে গিয়ে ফেলে। এমনই একটা ঘটনা ঘটলো হরিদেবপুর অঞ্চলে। বছর ৬০ বয়সের বৃদ্ধ বাবাকে ন’গ্ন করে মা’রধ’র করল

ছেলে। দিনের পর দিন অ’ভুক্ত রাখত নিজের জন্মদাতা বাবাকে। তার সঙ্গে চলতো নি’র্মম অ’ত্যাচার। ওই বৃদ্ধের নাম দেবাশীষ হালদার। সম্পত্তির লো’ভে তার এমন কর্মকা’ণ্ড বহুদিন চোখে পড়েনি গ্রামবাসীর। অবশেষে শনিবার এই নৃ’শং’স ঘটনার আসল চিত্র গ্রামবাসীদের নজরে আসে। সঙ্গে সঙ্গে তারা স্থানীয় হরিদেবপুর থানায় খবর দেয়। পু’লিশ

এসে ওই বৃদ্ধ বাবার গুণধর ছেলেকে গ্রে’প্তার করে নিয়ে যায়। অভিযুক্তের নাম সুরজিৎ হালদার। স্থানীয় সূত্রে খবর অভিজিৎ হালদার এর বাবা দেবাশিষ হালদার আগে ব্যাংকে চাকরি করতেন। তার নিজের বলতে দুই মেয়ে এবং এক ছেলে রয়েছে। ওই একমাত্র শিবরাত্রির সলতে ছেলেই তাকে দিনের পর দিন অ’ত্যাচার করে। বিষয়টির মধ্যে এতটাই

গো’পনি’য়তা ছিল যে আশেপাশের লোকজন বুঝতে পারেননি অবশেষে শনিবার পাশের বাড়ি থেকে প্রবল অ’ত্যাচারের শব্দ শুনতে পান। আমার স্বপ্নের কার কিনতে মাত্র চার মাসে আমি যেভাবে 14,300,000 টাকা Olymp Trade স’ন্দেহের বশে ব্যাপারটি জানার চেষ্টা করেন প্রতিবেশীরা। মা’রধরে’র আওয়াজ জানলে খুলতে চেষ্টা করেন তারা। অবশেষে দেখতে

পান দেবাশিষ হালদার নামক ওই বৃদ্ধের চ’রম পরিণতি। বৃদ্ধ বাবাকে একমাত্র সন্তানের এমন অ’ত্যাচার দেখে ক্ষো’ভে ফে’টে পড়েছেন হরিদেবপুর গ্রামবাসী। তৎক্ষণাৎ নিজেদের প্রচেষ্টায় সকলে পার্শ্ববর্তী থা’নায় গিয়ে খবর দেন। পু’লিশ এসে গুণধ’র সুরজিৎকে গ্রে’ফতার করে নিয়ে যায়। সুরজিৎ এর এই রূপ প্রথম নয়। ইতিপূর্বে নিজের ছোট বোনকে অমানবিক অ’ত্যাচার করত সে। এমনকি বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিল তার ছোট বোনকে। এমনই চাঞ্চল্যকর

তথ্য দিল সুরজিৎ এর বড় বোন।সে জানিয়েছে তার দাদা প্রায় ৩- ৪ বছর ধরে নিজের বাবার উপর এমন অমানবিক অত্যা’চার করত। তবে আজ তার আর শেষ রক্ষা হল না। ধরা পড়তে হলো পু’লিশের হাতে। সুরজিৎ এর বড় বোন

জানিয়েছে, তাকেও নাকি অনেক সময় বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া হতো না। হরিদেবপুর অঞ্চলের বাসিন্দাদের একটাই বক্তব্য, এমন নির্ম’ম অত্যা’চারের সন্তানের যেন উপযুক্ত সাজা হয়। এই অত্যা’চারের যথাযোগ্য ব্যবস্থা গ্রহণ করবে হরিদেবপুর থানার পুলি’শ।

About By Editor

Check Also

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে- প্রেম মানে না কোনো বাঁধা, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *