Image: google

সংসারে সুখ-শান্তি ধরে রাখতে চাইলে এই ৪টি কথা সব সময় এড়িয়ে চলুন

সংসারে সুখ-শান্তি ধরে রাখতে চাইলে এই ৪টি কথা সব সময় এড়িয়ে চলুন – সংসার মানে হচ্ছে স্বামী-স্ত্রী একে অপরকে বোঝাপড়া। টাকা-পয়সা, সৌন্দর্য এগুলো দরকারি, তবে বিবাহিত জীবনকে সুখী করতে যথেষ্ট নয়। দাম্পত্য সম্পর্ক সুন্দর করে রাখার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আন্তরিকতা।

বিনয়, নমনীয়তা, বিশ্বাস, ভালো স্বভাব, সহযোগী মনোভাব, ক্ষমাশীলতা, উদারতা ও ধৈর্যশীলতা সংসার টিকিয়ে রাখতে সাহয্যে করে। আর সব মিলিয়েই ভালোবাসা। এটা ছাড়া কোনো সাংসারিক দাম্পত্য জীবন সুখী হতে পারে না। তাই একে-অন্যের প্রতি মায়া-মমতা ও ভালোবাসা থাকতে হবে।প্রেম, বিশ্বাস, শ্রদ্ধা ও নির্ভরযোগ্যতা বিয়ের চারটি স্তম্ভ।

যখন একটি স্তম্ভ দুর্বল হয়ে যায়, সম্পর্ক নড়বড়ে হয়ে পড়ে। তাই সংসার জীবনে অনেক কিছুই মেনে চলতে হবে। স্ত্রীকে মুখ ফসকে সব কথা বলা যাবে না। কিছু কথা রয়েছে যা দাম্পত্য জীবনের সুখ কেড়ে নিতে পারে।

কোন ৪টি কথা স্ত্রীকে ভুলেও বলা উচিত নয়, আসুন জেনে নেয়া যাক :

1.তুমি স্বার্থপরঃ স্বামী ও স্ত্রী একে অপরকে কখনই বলা যাবে না যে ‘তুমি এতো স্বার্থপর কেন?’ স্ত্রী যদি আপনার পছন্দ মতো কাজ না করে, তাহলে তাকে দোষী মনে হতে পারে। যদি সে আসলেই স্বার্থপরের মতো আচরণ করে থাকে, তবু তাকে এ কথা বলবেন না।

2.তোমাকে বিয়ে করা জীবনের সবচেয়ে বড় ভুলঃ স্ত্রী যদি কোনো ভুল করে, তবে কখনই বলবেন না ‘তোমাকে বিয়ে করা জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল ছিলো’। ঝগড়ার সময় এ ধরনের কথাগুলোই সম্পর্ক আরো তিক্ত করে তুলতে পারে।

3.তোমার চেয়ে আমার চাকরি/কাজ বেশি গুরুত্বপূর্ণঃ প্রতিটি কাজে একে অপরকে সম্মান করা উচিত। স্বামীর চেয়ে আপনার আয় বেশি হলেও স্বামীকে কখনই বলা যাবে না যে ‘তোমার চেয়ে আমার চাকরি গুরুত্বপূর্ণ। তা হলে তিনি কষ্ট পাবেন।

4.তোমার মা/বাবাকে পছন্দ করি নাঃ শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখাটা অত্যাবশ্যক। অনেককে আপনি পছন্দ নাই করতে পারেন। তাই বলে রাগের মাথায় ‘আমি তোমার মাকে ঘৃণা করি’ বা ‘তোমার বাবাকে আমার পছন্দ না’- এ ধরনের কথা বলা যাবে না।

About By Editor

Check Also

রান্নার গ্যাস বুকিংয়ে এখন পাচ্ছেন ৫০ টাকা ছাড়!

রান্নার গ্যাস বুকিংয়ে এখন পাচ্ছেন ৫০ টাকা ছাড়! – দেশজুড়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়ার পাশাপাশি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x