Thursday , November 26 2020
Image: google

মাধ্যমিকের রেজাল্ট নিয়ে বিশাল আপডেট রাজ্য সরকারের

মাধ্যমিকের রেজাল্ট নিয়ে বিশাল আপডেট- এখন নয়, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তবেই মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে বলে মঙ্গলবার জানালেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে তিনি জানান, বাকি তিনদিনের পরীক্ষার সূচি

অনুযায়ী প্রস্তুতি সেরে রাখছে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। আর দেশের অন্যান্য রাজ্য ও বোর্ড কী করছে, তার উপরে নজর রাখছে স্কুলশিক্ষা দপ্তর। আইসিএসই এবং আইএসসি অবশ্য ইতিমধ্যেই বাকি পরীক্ষা ঐচ্ছিক করে দিয়েছে। মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষের পর কেটে গিয়েছে সাড়ে তিন মাসেরও বেশি সময়। পরীক্ষার ফল কবে বেরোবে, তা নিয়ে

উৎকণ্ঠায় সওয়া ১০ লক্ষ পড়ুয়া ও তাদের অভিভাবকরা। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ১৫ জুলাইকে পাখির চোখ করে ফলপ্রকাশের তোড়জোড় শুরু করেছে। কিন্তু শিক্ষামন্ত্রীর এ দিনের মন্তব্যের পর, বিষয়টি একটু অনিশ্চিত হয়ে পড়ল। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে পার্থ এ দিন বলেন, ‘রেজাল্ট বেরিয়ে করবে কী? তারা (পরীক্ষার্থী) যাবে কোথায়? স্কুল-কলেজের এই

অবস্থা। সব বন্ধ। তবে আমরা তৈরি আছি। পরিস্থিতির একটু পরিবর্তন হলেই ফল বেরোবে। সবাইকে আমরা সে ভাবে প্রস্তুত থাকতে বলেছি। কিন্তু কবে ফল প্রকাশ করা যাবে, এখনই সেটা বলা সম্ভব নয়। তা ছাড়া আমরা ফল প্রকাশ করলেই তো হবে না! স্কুল বন্ধ। মার্কশিট পৌঁছবে কী করে? ছাত্রছাত্রীদের ভর্তির ব্যবস্থা করতে হবে। একটা জটিল

প্রক্রিয়া। বিগত দিনে যে ভাবে হয়েছে, এ বার তো সে ভাবে হবে না। স্কুল খুলে দিলে সবাই চলে আসবে। ভিড় হবে। সেটা মোটেই ভালো হবে না।’ প্রাক্তন স্কুল শিক্ষামন্ত্রী পার্থ দে অবশ্য টেলিভিশনে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য দেখে জানান, পর্ষদ প্রস্তুত থাকলে যত শীঘ্র সম্ভব, ফল প্রকাশ করা উচিত। তিনি বলেন, ‘এখন তো অনেক আধুনিক

ব্যবস্থা হয়েছে। স্কুলে-স্কুলে মার্কশিট পৌঁছনোর বদলে পর্ষদ নিজস্ব ওয়েবসাইটে ফল বের করতে পারে। তা ছাড়া নিয়ম মেনে কয়েকদিন পর ধাপে ধাপে অভিভাবকদের হাতেও মার্কশিট তুলে দেওয়া যায়। রেজাল্ট দেখতে পেলে পড়ুয়াদের পরবর্তী ধাপের লেখাপড়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হত।’ এ দিকে, করোনার ভয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের বাকি

তিনদিনের পরীক্ষা ও শিক্ষাবর্ষ পিছিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন শিক্ষাবিদরা। তাঁদের বক্তব্য, এখন পরীক্ষা নেওয়া ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। এ প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর মন্তব্য, ‘সর্বভারতীয় প্রেক্ষাপটের দিকে নজর রাখছি।’ আইসিএসই কাউন্সিল ইতিমধ্যেই জানিয়েছে, দশম এবং দ্বাদশের বাকি পরীক্ষা আর বাধ্যতামূলক থাকছে না। পরীক্ষাগুলি হবে কি না, সে

ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে পড়ুয়ারাই। ৩১ জুলাই পর্যন্ত স্কুলছুটির বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন শিক্ষাসচিব। পশ্চিমবঙ্গ সরকারি বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি সংসদকে চিঠি দিয়ে পরীক্ষা স্থগিতের দাবি জানিয়েছে।

About By Editor

Check Also

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে- প্রেম মানে না কোনো বাঁধা, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *