Image: google

টানা ২০ বছর ধরে জলে দাঁড়িয়ে আছে যে নারী!

টানা ২০ বছর ধরে জলে দাঁড়িয়ে আছে যে নারী! – পানির অপর নাম জীবন। পানি না খেলে মানুষ বাঁচতে পারে না। তবে এ কথা কি শুনেছেন? কেউ পানির মধ্যে বাস করে। তাও আবার এক বছর দুই বছর নয়, টানা ২০ বছর ধরে পানির মধ্যে বাস করছেন। হ্যাঁ,

ঠিকই শুনেছেন!তেমনটাই হয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একটি গ্রামে। যেখানে একজন ৬৬ বছর বয়সী নারী বাস করেন। তার নাম পাতুরানি ঘোষ। এই নারী গ্রামের একটি পুকুরে বিগত ২০ বছর ধরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা পানিতে বাস করছেন। তিনি প্রতিদিন ১৫ থেকে ১৬ ঘণ্টা পুকুরের

মধ্যে থাকেন। শুধু তার ঘুমের চাহিদা পূরণ করার জন্য পানি থেকে তাকে তুলে আনা হয়।বিগত ২০ বছর ধরে প্রতিদিন সকালে সূর্য ওঠার আগেই এই নারী পুকুরে চলে যান। সে পানিতে দাঁড়িয়ে থাকেন। তার মুখ অবশ্য পানির উপরে থাকে। শোনা যায়, পাতুরানি নামে এই নারী

১৯৯৯ সালে একটি বিরল রোগে আক্রান্ত হন। আর এই কারণে সূর্যের আলো লাগলে তার শরীরে জ্বালা করা শুরু হয়। তাই তিনি পানির সংস্পর্শে থাকেন স্বস্তি পেতে। এই ঘটনার ২০ বছর পার হয়ে গেছে। রাত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাকে পানি থেকে তুলে আনা হয়। যাতে সে

ঘুমাতে পারে। এই গ্রামের লোকজন খুবই গরিব। তাই এই নারীর পরিবার তার সুষ্ঠু চিকিৎসা করতে সক্ষম হয়নি। এই নারী ভারতের জলপরী নামে পরিচিত। তার খাবারের তালিকায় রয়েছে ভাত এবং অল্প সবজি। আর তাও তাকে পানির মধ্যে খাওয়ানো হয়। তার মতে, পানিতে থাকলে

তার শরীরের জ্বালা-পোড়া ভাব কমে। যখনই তিনি পানিতে থাকেন তখন তার আত্মীয়রা তাকে এসে দেখে যায়। সে ঠিক আছে কিনা তা দেখার জন্য। পাতুরানির গ্রামের কুসংস্কারীরা বিশ্বাস করে, তিনি একদিন এই পুকুরের অংশ হয়ে যাবে। তবে তার পরিবারের আশা করছে,

তারা বৃদ্ধার এই রোগের চিকিৎসা করবেন। মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, পাতুরানির এভাবে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত পানিতে বসে থাকা একটি মানসিক রোগ। সঠিকভাবে চিকিৎসা করলে তার পক্ষে সুস্থ জীবনে ফিরে আসা সম্ভব।

About By Editor

Check Also

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে- প্রেম মানে না কোনো বাঁধা, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *