Image: google

চির বিদায় নিলেন অভিনেতা তাপস পাল!

চলে গেলেন অভিনেতা তাপস পাল! – টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ও সাবেক সাংসদ তাপস পাল আর নেই। ভারতের মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে মঙ্গলবার ভোররাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই জনপ্রিয় অভিনেতা। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৬১ বছর। মাত্র ২২ বছর বয়সে মুক্তি পায় তাপস পালের প্রথম ছবি ‘দাদার কীর্তি’।

এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। অভিনেতা চিরঞ্জিত চক্রবর্তী পর্যন্ত বলেছিলেন, দাদার কীর্তিতে তাপস পাল যে অভিনয় করেছেন তা আমি করতে পারতাম না। তাপস পালের উল্লেখযোগ্য ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘সাহেব’, ‘অনুরাগের ছোঁয়া’, ‘পারাবত প্রিয়া’, ‘ভালোবাসা ভালোবাসা’।

‘সাহেব’ ছবিটির জন্য তাপস পাল ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পান ১৯৮১ সালে। বাংলার পাশাপাশি তাপস পাল অভিনয় করেছেন হিন্দি ছবিতেও। মাধুরী দীক্ষিতের বিপরীতে অভিনয় করেছেন ‘অবোধ ছবিতে’। রাখী গুলজারের সঙ্গেও অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে তাকে। রুপোলি পর্দার নায়ক থেকে সংসদের গণ্ডিতে। ২০০৯ সালে মোড় ঘুরে যায় তাপস পালের অভিনেতা জীবনে।

ওই বছর রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের টিকিটে কৃষ্ণনগর থেকে জিতে সাংসদ হন তাপস পাল। নানা মন্তব্যকে ঘিরে বিতর্কেও জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। সেই সঙ্গে রোজভ্যালি কাণ্ডে যুক্ত থাকার অভিযোগও ওঠে তার বিরুদ্ধে। তাকে গ্রেফতারও করে সিবিআই। শেষ পর্যন্ত অভিনয়ের চেনা জগতেও ফিরতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু অসুস্থ হয়ে পড়ায় ফিরতে পারেননি চেনা গণ্ডিতে।

“তাপসের চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছি না”- রঞ্জিত মল্লিক ,দেবশ্রী

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পাল আর নেই। মঙ্গলবার ভোরে মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তাপসের এই মৃত্যু মানতে পারছেন না তা দীর্ঘদিদের সহকর্মীরা। আচমকা এমন মৃত্যুর খবরে ভেঙেও পড়েছেন কেউ কেউ।বহু ছবিতে তাপসের সহ-অভিনেত্রী হিসেবে কাজ করছেন দেবশ্রী রায়।

দেবশ্রী বলছেন, কিছুতেই মেনে নিতে পারছি না তাপস নেই। আপনজনকে হারিয়ে ফেললাম। দেবশ্রীর সঙ্গে দাদার কীর্তি ছাড়াও সমাপ্তি, চোখের আলোয়, পর্বত প্রিয়, আগমন, সুরের আকাশেসহ আরও কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তাপস পাল। বুদ্ধদেব দাশগুপ্তর ‘উত্তরা’-র মতো ছবিতে কাজ করে দর্শকের মন জয় করেছিলেন তিনি। তাপসের সঙ্গে একসঙ্গে বহু সিনেমায় কাজ করেছেন কলকাতার আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিক। রঞ্জিত মল্লিক বলছেন, খবরটা শুনে খুব খারাপ লাগছে।

আমরা অনেক ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছি। সব ছবিই জনপ্রিয়। তার মধ্যে গুরুদক্ষিণার মতো সিনেমাও রয়েছে। খবরটা শুনে মন খারাপ হয়ে গেল। দীর্ঘদিন ধরে একসঙ্গে কাজ করেছি তো। আর কী বলব বলুন? আত্মার শান্তি কামনা করি। মঙ্গলবার ভোরে মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে মারা যান তাপস পাল। তার বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।

অভিনয়ের পাশাপাশি ২০০৯ সালের ভারতীয় সাধারণ নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে টিকিট নিয়ে নির্বাচিত হয়ে কৃষ্ণনগর থেকে এমপি হন তিনি। ২৮ জানুয়ারি মেয়ের সঙ্গে দেখা করতে মুম্বাই গিয়েছিলেন তাপস পাল। তার ফেরার কথা ছিল ২ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু বিমান ধরার আগেই বুকে ব্যথা শুরু হয়। তখন থেকেই মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। আর আজ সকালে তার মৃত্যু হলো।

About By Editor

Check Also

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে- প্রেম মানে না কোনো বাঁধা, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x