Image: google

এটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবার! মোট সদস্য সংখ্যা ৩৪৬ জন!

বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবার এটি! মোট সদস্য সংখ্যা ৩৪৬ জন! -বৃদ্ধ পাভেল সিমিনইয়ুক। বসবাস করেন দক্ষিণ ইউক্রেনের দ্রোবোস্লাভে। তার পরিবারের সদস্য ৩৪৬! এতো বড় পরিবার পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেন ৮৭ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধ। তিনি দাবি করেছেন, তার

পরিবার পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পরিবার। কারণ ৩৪৬ জন সদস্য নিয়ে তার বসবাস। তিনি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ পরিবারের জন্য আবেদনও করেছেন। ইউক্রেনের এ বাসিন্দার সন্তান ১৩ জন, নাতি-নাতনি ১২৭ জন, নাতি-নাতনির সন্তান ২০৩ জন এবং নাতি-নাতনির

সন্তানের সন্তান ৩ জন। এ নিয়ে সর্বমোট ৩৪৬ জন সদস্য নিয়ে তার বসবাস। বিশাল এ পরিবারের কর্তা সাবেক নির্মাণ শ্রমিক। তিনি বলেন, এতো বড় পরিবার পেয়ে আমি ভাগ্যবান। কিন্তু মুশকিল হলো, পরিবারের প্রত্যেকের নাম মনে রাখা খুব কঠিন। পাবেল জানান, প্রত্যেক বছর

তার পরিবারের কোনো সদস্য নতুন পরিবার গঠন করেন। তাই তার নির্মাণ ব্যবসায় লোকের অভাব হয় না। দেশটির জাতীয় নিবন্ধন সংস্থার প্রধান লানা ভেদরোভা বলেন, এরকম পরিবারের সংখ্যা পৃথিবীতে নেই বললেই চলে। এর আগে অবশ্য ১৯২ সদস্য নিয়ে ভারতের একটি পরিবার গিনেস বুকে রেকর্ড করে।-ডেইলি মেইল

৮৭ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ দাবি করেছেন, তার পরিবার পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পরিবার। ৩৪৬ জন সদস্য নিয়ে তার বসবাস। তিনি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ পরিবারের জন্য আবেদনও করেছেন। এ বৃদ্ধের নাম পাভেল সিমিনইয়ুক। তিনি ইউক্রেনের বাসিন্দা। তার সন্তান ১৩ জন,

নাতি-নাতনি ১২৭ জন, নাতি-নাতনির সন্তান ২০৩ জন এবং নাতি-নাতনির সন্তানের সন্তান ৩ জন। এ নিয়ে সর্বমোট ৩৪৬ জন সদস্য নিয়ে তার বসবাস। তার পরিবারের সর্বকনিষ্ঠ সদস্যটির বয়স মাত্র দুই সপ্তাহ। .পাভেল সিমিনইয়ুক সব সময় বড় পরিবারের স্বপ্ন দেখতেন। দক্ষিণ ইউক্রেনের দ্রোবোস্লাভে বসবাস করা এ বৃদ্ধ এতো বড় পরিবার পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেন। বিশাল এ পরিবারের কর্তা সাবেক নির্মাণ

শ্রমিক পাভেল বলেন, এতো বড় পরিবার পেয়ে আমি ভাগ্যবান। কিন্তু মুশকিল হলো, পরিবারের প্রত্যেকের নাম মনে রাখা খুব কঠিন। বয়সে বড়দের নাম মনে রাখতে পারি কিন্তু কম বয়সীদের নাম মনে রাখা কঠিন হয়ে যায়। প্রত্যেক বছর পাভেলের পরিবারের কোনো সদস্য নতুন পরিবার গঠন করেন। তিনি বলেন, এ কারণে আমার নির্মাণ ব্যবসায় লোকের অভাব হয় না।পাভেলের পরিবারের ৩০ জন শিশু এখন স্কুলে

যায়। তাদের জন্মদিনে আয়োজনও হয় অনেক বড়। পাভেলের মেয়ে ৬৬ বছর বয়সী ভিরা সিমিনইয়ুক বলেন, বিয়ে কিংবা জন্মদিনের পার্টির জন্য আমরা বিশাল বড় পাত্রে রান্না করি। এসময় প্রত্যেক নারী একে অপরকে সাহায্য করে। পাভেলের পরিবার ইতোমধ্যেই ইউক্রেনের সবচেয়ে বড় পরিবার হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের জন্য তার পরিবারের প্রত্যেকের নাম জাতীয়ভাবে নিবন্ধনও করা হয়েছে।

জাতীয় নিবন্ধন সংস্থার প্রধান লানা ভেদরোভা বলেন, এরকম পরিবারের সংখ্যা পৃথিবীতে নেই বললেই চলে। তিনি বলেন, এর আগে অবশ্য ১৯২ সদস্য নিয়ে ভারতের একটি পরিবার গিনেস বুকে রেকর্ড করে।

About By Editor

Check Also

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে- প্রেম মানে না কোনো বাঁধা, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *