Tuesday , November 24 2020
Image: google

একটানা ৫/৭ দিন ঝড়-বৃষ্টিতে তছনছ হয়ে যেতে পারে গোটা বাংলা

একটানা ৫/৭ দিন ঝড়-বৃষ্টিতে তছনছ হয়ে যেতে পারে গোটা বাংলা – আগামী সপ্তাহ জুড়েই ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রাজ্যে। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। অসম এবং উত্তরপ্রদেশে রয়েছে জোড়া ঘূর্ণাবর্ত। উত্তরপ্রদেশের ঘূর্ণাবর্ত থেকে ঝাড়খন্ড পর্যন্ত নিম্নচাপ অক্ষরেখা। এর জেরে সাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে।

আগামী কয়েকদিন বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি থাকবে চরমে। দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম ঝাড়গ্রাম পূর্ব পশ্চিম মেদিনীপুরে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি।কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের অন্য জেলাতেও বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা বৃষ্টি ঝড় হওয়ার সম্ভাবনা। বিক্ষিপ্তভাবে দু-এক জায়গায় কালবৈশাখী হতে পারে। রবিবারের ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা উত্তর ও দক্ষিণ উভয় বঙ্গেই। দক্ষিণবঙ্গের মুর্শিদাবাদ বীরভূম নদিয়া দুই ২৪ পরগনায় ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বেশি বৃষ্টির সম্ভাবনা উত্তরবঙ্গের উপরে ৫ জেলায়। সেখানে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

ঝড়ো হাওয়াও বইতে পারে। দক্ষিণবঙ্গের মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, নদিয়া, ২৪ পরগনায় ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে রবিবার। সোমবারে সামান্য কম সম্ভাবনা ঝড়বৃষ্টির। মঙ্গলবারে রাজ্যজুড়ে ফের ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা প্রবল। মঙ্গলবার ভারী বৃষ্টি হতে পারে উত্তরবঙ্গের সিকিমও তাঁর পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে। দেশের বিচারে সোমবার বিহারে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর। ভারী বৃষ্টি হবে অসম, মেঘালয়ে।

সঙ্গে ঝোড়ো হওয়া বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। আগামী কয়েকদিন তাপমাত্রা বাড়বে কর্ণাটক, তেলেঙ্গানায়। রাজস্থানে ধুলিঝড়ের সম্ভাবনা। আগামী ৪৮ ঘণ্টায় বৃষ্টি ও সামান্য তুষারপাতের সম্ভাবনা জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ, হিমাচল প্রদেশের দু-এক জায়গায়। শনিবার সন্ধ্যায় ৫৬ কিলোমিটার বেগে ৬.২৩ থেকে ৬.২৪ মিনিট পর্যন্ত ঝড় হয় কলকাতায়, যা কালবৈশাখীর তকমা পেয়েছে। এই ঝড় এবং ছিটেফোঁটা বৃষ্টি প্রভাব ফেলেছে শহরের ক্রমবর্ধমান গরমে।

শনিবার সকালে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ফের চড়তে শুরু করেছিল। শনিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। সপ্তাহের মাঝে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা বাড়লেও গত কয়েকদিন সকালবেলা থেকে যে পরিমাণ অস্বস্তিকর গরম হচ্ছিল তা তুলনামূলকভাবে কমেছিল। শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি ছিল। শনিবার ২৮ ছুঁই ছুঁই হয়ে যায়।

তারপর ওডিশার মেঘে ঝড় ঝাপটায় রবিবার সকাল সকাল পারদ নেমে ২৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও কমেছে অনেকটাই। বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম ছিল। শুক্রবার তা বেড়ে ৩৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস হয়েছে , যা স্বাভাবিক। শনিবার ঝড়ে তা ৩৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম।

About By Editor

Check Also

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে- প্রেম মানে না কোনো বাঁধা, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *