Image: google

অফিসের বস কিডনী দিয়ে জীবন বাঁচালেন কর্মচারীর

অফিসের বস কিডনী দিয়ে জীবন বাঁচালেন কর্মচারীর – মানবতার অনন্য নজির গড়লেন কলকাতার দিতি লাহিড়ী। শুধু রক্তের সম্পর্কে নয়, ভালোবাসায় আত্মীয়তা হয় – এটাই নতুন করে প্রমাণ করলেন তিনি। দিতি লাহিড়ী আর মার্সেনিল সিনহা দুজনেই তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী।

বেঙ্গালুরুতে একই অফিসে কাজ করেন তাঁরা। এমনকি একই প্রোজেক্টে দিতির অধীনে কাজ করেছেন মার্সেনিল। কিন্তু অসুস্থ হয়ে পড়ায় মার্সেনিলকে ফিরে আসতে হয়েছিল নিজের শহর ঝাড়খণ্ডের বোকারোতে। তারপর ভর্তি হয়েছিলেন কলকাতার বড় নার্সিংহোমে। চিকিৎসকেরা পরীক্ষা করে বলেছিলেন,

স্রিকিং কিডনি। অর্থাৎ একটা কিডনি বদলাতে হবে। সঙ্গে চলবে নিয়মিত ডায়ালিসিস তেমনটাই চলছিল গত ৫ বছর ধরে। কিন্তু হন্যে হয়ে খুঁজেও কোনও কিডনি দাতাকে যোগাড় করতে পারেননি মার্সেনিল। তাঁর মা-বাবার বয়স হয়েছে। তার ওপর অসুস্থ। তাই তাঁরা কিডনি দিতে পারবেন না।

অন্যান্য আত্মীয়-স্বজনদের বলেও কোনও লাভ হয়নি। দিনে দিনে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এবার কিডনি না বদলালে আর চলবে না। কিন্তু কিডনি দান করতে কেউ রাজি হলে তবে তো! হাল ছেড়ে দিয়েছিলেন বছর চল্লিশের মার্সেনিল। তখনই দেবদূতের মতো আবির্ভাব একসময়ের বস, সহকর্মী দিতি লাহিড়ীর।

প্রতিদিন খেজুর খাওয়ার উপকারিতা

পুষ্টিগুণে ভরপুর খেজুরে রয়েছে ভিটামিন, আঁশ, ক্যালসিয়াম, আয়রন, ফসফরাস, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম ও জিঙ্ক।খেজুর একজন সুস্থ মানুষের শরীরে আয়রনের চাহিদার প্রায় ১১ ভাগই পূরণ করে। তাই প্রতিদিন খেতে পারেন খেজুর। পুষ্টিবিদদের মতে, শরীরের প্রয়োজনীয় আয়রনের অনেকটাই খেজুর থেকে আসে।

এ ছাড়া ডায়াবেটিস থাকলে প্রচলিত খেজুরের বদলে শুকনো খেজুরকে ডায়েটে রাখতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। খেজুরের পুষ্টিগুণ: সুস্বাদু আর বেশ পরিচিত একটি ফল, যা ফ্রুকটোজ ও গ্লাইসেমিক সমৃদ্ধ। এটি রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়ায়। খেজুর ফলকে চিনির বিকল্প হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। খেজুরের পুষ্টি উপাদান সম্পর্কে বলা হয়

চারটি বা ৩০ গ্রাম পরিমাণ খেজুরে আছে ৯০ ক্যালোরি, এক গ্রাম প্রোটিন, ১৩ মিলি গ্রাম ক্যালসিয়াম, ২.৮ গ্রাম ফাইবার এবং আরও অন্যান্য পুষ্টি উপাদান। খেজুর শক্তির একটি ভালো উৎস। তাই খেজুর খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শরীরের ক্লান্তিভাব দূর হয়। আছে প্রচুর ভিটামিন বি, যা ভিটামিন বিসিক্স মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক।

About By Editor

Check Also

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে

ভালোবাসার টানে ১ সন্তানের মা ভারত থেকে চলে আসলেন বাংলাদেশে- প্রেম মানে না কোনো বাঁধা, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x